সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ১২:৩১

মুরসিকে হটাতে অর্থ বিনিয়োগ সৌদি বাদশার

মুরসিকে হটাতে অর্থ বিনিয়োগ সৌদি বাদশার

 

 

 

 

 

 

 

 

 

প্রথমবারের মতো গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত মিশরের প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুরসিকে সেনা অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতাচ্যুত করায় এখনও ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা হচ্ছে।
মুরসির নিজ ব্যর্থতার কারণে ক্ষমতাচ্যুতি ঘটলেও কেউ কেউ পাশ্চাত্যের ষড়যন্ত্রের দিকেও আঙ্গুল তুলেছেন।

কিন্তু বোমা ফাটালেন সৌদি আরবের রাজনৈতিক সংগঠক মুজতাহিদ। সৌদি সরকারের নানা কেলেঙ্কারির তথ্য ফাঁসকারী মুজতাহিদ তার ব্যক্তিগত টুইটার বার্তায় দাবি করেন, মুরসিকে ক্ষমতাচ্যুত করতে মিশরের সেনাপ্রধান জেনারেল আবদেল ফাত্তাহ এল-সিসিকে একশ’ কোটি মার্কিন ডলার প্রদান করেছেন সৌদি বাদশাহ আবদুল্লাহ বিন আবদুল আজিজ।
বিনিয়োগের এটা কেবল প্রাথমিক পর্যায়। নিজেদের উদ্দেশ্য হাসিলে যথেষ্ট অর্থ প্রদান করবেন বলে সিসিকে সৌদি বাদশাহ অঙ্গীকার দিয়েছেন বলেও দাবি করেন মুজতাহিদ।

টুইটার বার্তায় মুজতাহিদ জানান, মুরসির ক্ষমতাচ্যুতির পর গণঅভ্যুত্থান সামাল দিতে ব্যর্থ হওয়ায় সৌদি সরকার এখন বেশ উদ্বিগ্ন। টুইটারে তিনি লিখেন, এই সেনা অভ্যুত্থান ব্যর্থ হলে পরবর্তী সময়ে মিশরের যে কোনো সরকারই সৌদি-আরববিরোধী নীতি গ্রহণ করবে। এ কারণে বিক্ষোভকারীদের দমাতে যেকোনো ধরনের কঠিন পদক্ষেপকে সমর্থন যোগাচ্ছেন বাদশ‍াহ আবদুল্লাহ। এমনকি হাজারো মানুষকে হত্যা করার প্রয়োজন হলেও সেনাবাহিনীকে সমর্থন দিয়ে যাবেন তিনি।

মুজতাহিদ দাবি করেন, ‘আবদুল্লাহ শুধু সেনা অভ্যুত্থানকেই সমর্থন যোগাচ্ছেন না, এ ব্যাপারে উদ্বিগ্ন না হয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ বাস্তবায়নে সিসিকে উৎসাহও যোগাচ্ছেন তিনি। দফায় দফায় সহিংসতায় কয়েকশ’ মানুষ নিহত হওয়ার ঘটনায় মিশরের সেনা অভ্যুত্থানের জনপ্রিয়তা প্রশ্নের সম্মুখীন হতে পারে-সিসির এমন উদ্বেগে পরিপ্রেক্ষিতে প্রয়োজনে আরও যথেষ্ট পরিমাণ অর্থ প্রদানের প্রলোভন দেখাচ্ছেন বাদশাহ আবদুল্লাহ।

এছাড়া চলমান অস্থিরতায় যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে ‘ম্যানেজ’ করতে সব রকমের রাজনৈতিক ও আর্থিক সহায়তা দিতে সিসিকে আশ্বাস দিচ্ছেন সৌদি আরবের সরকার প্রধান বাদশাহ আবদুল্লাহ! আরব অঞ্চলের বেশ কয়েকটি সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত মুজতাহিদের এ বক্তব্যের ব্যাপারে এখনও কোনো মন্তব্য করেনি সৌদি সরকার বা মিশরের সেনা কর্তৃপক্ষ।

উল্লেখ্য, ২০১১ সালের শেষ দিকে স্বৈরশাসক হোসনি মোবারকের পতনের পর ২০১২ সালের জুনে প্রথমবারের মতো জাতীয় নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন মুসলিম ব্রাদারহুডের নেতা মুরসি। কিন্তু বিরোধীদের বিক্ষোভের মুখে সেনা অভ্যুত্থানে গত ৩ জুলাই ক্ষমতাচ্যুত হন তিনি। তারপর থেকে মুরসিকে স্বপদে বহাল করতে বিক্ষোভ করে আসছে তার দল ব্রাদারহুড। বিক্ষোভ চলাকালে কয়েক দফা সহিংসতায় এখন পর্যন্ত নিহতের সংখ্যা দুই শত ছাড়িয়ে গেছে বলে দাবি করছে দলটি।

 




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *



পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
All rights reserved © shirshobindu.com 2012-2024