বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল ২০২১, ১২:২২

৪ হাজার গাড়ির কর ফাঁকি দিয়ে উৎকোচের বিনিময়ে ছাড়িয়ে নেয়ার উদ্যেগ

৪ হাজার গাড়ির কর ফাঁকি দিয়ে উৎকোচের বিনিময়ে ছাড়িয়ে নেয়ার উদ্যেগ

এখানে শেয়ার বোতাম
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

ট্যাক্স কমিয়ে তিন বছর আগে আনা মোটা অংকের উৎকোচের বিনিময়ে ট্যাক্স ফাঁকিতে চার হাজার পুরনো গাড়ি ছাড়ের চূড়ান্ত উদ্যোগ নিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। যে কোনো মুহূর্তে গাড়িগুলো ছাড় দেবে মংলা পোর্ট কাস্টমস। নিশ্চিতভাবে এই গাড়িগুলো ছাড় দিলে সরকার এক হাজার কোটি টাকার রাজস্ব হারাবে।

নিয়ম অনুযায়ী গাড়ি আমদানির পর থেকে তিন মাসের মধ্যেই তা ছাড় করানোর কথা। কিন্তু কাস্টমসের খাতায় আমদানি এন্ট্রি হওয়ার দিন থেকে তিন মাসের মধ্যে কেউ যদি গাড়ি ছাড় না করান, তবে তা তিন মাস পর তা নিলামে বিক্রি করে দেওয়ার কথা। কিন্তু মংলাবন্দর কাস্টমস তা করেনি। মোটা অংকের উৎকোচের বিনিময়ে তারা গাড়িগুলো রক্ষণাবেক্ষণ করেছে। গাড়িগুলো তারা কেন নিলামে তোলেনি এ বিষয়ে কোন সদুত্তর দিতে পারেনি কাস্টমস কর্মকর্তারা।

ট্যাক্স কমিয়ে গাড়ি ছাড় দিলে গাড়ি প্রতি সরকার রাজস্ব হারাবে আড়াই থেকে তিন লাখ টাকা। বিলাসবহুল গাড়িতে রাজস্ব ক্ষতি হবে আরও অনেক বেশি। দামি গাড়ির মধ্যে প্রাডো গাড়িতে রাজস্ব ক্ষতি হবে ১০ লাখ টাকা।  রাজস্ব বোর্ডের কর্মকর্তারা জানান, অতীতে কখনও গাড়ি আমদানিতে এমন ট্যাক্স ফাকির ঘটনা ঘটেনি। অনেক আগে আমদানি করে ট্যাক্স কমানোর রেকর্ডও নেই বলে জানান প্রতিষ্ঠানটির সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

এনবিআর কর্মকর্তারা ট্যাক্স কমিয়ে গাড়ি ছাড়ের উদ্যোগ নিলেও কেউ তা স্বীকার করছেন না। সংগোপনে ছাড়ের প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন করা হচ্ছে। রিকন্ডিশন্ড ভেহিকেল ইমপোর্টারস অ্যান্ড ডিলারস অ্যাসোসিয়েশনের (বারভিডা) কয়েকজন নেতা তিন বছর আগে গাড়িগুলো আমদানি করেন। কিন্তু ট্যাক্স ফাঁকি দিতেই তারা এসব গাড়ি ছাড় করাননি। নতুন বাজেটে অবচয় সুবিধা কমানোর পর তারা গাড়ি ছাড়ানোর জন্য নানামুখী তৎপরতা চালাচ্ছেন। সূত্র মতে জানা যায়, বিপুল অংকের রাজস্ব ক্ষতি হবে জেনেও রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান নতুন বাজেটের আওতায় গাড়ি ছাড়ের অনুমতি দিয়েছেন। কয়েকদিনের মধ্যেই ব্যবসায়ীরা গাড়িগুলো ছাড় করাবেন বলে জানা গেছে।

মংলা পোর্টের সহকারী ট্রান্সপোর্ট কাস্টমস কমিশনার জানান, তিন বছর আগে আনা গাড়িতে ট্যাক্স ফাঁকি দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। যে তারিখে আমদানি করা হয়েছে, সেই সময়ের নির্ধারিত ট্যাক্স দিতে হবে। নতুন অর্থ বছরের অনুমোদিত ট্যাক্সের আওতায় তিন বছর আগে আনা গাড়ি ছাড় করানো যাবে না। তিনি জানান, ট্যাক্স কমিয়ে গাড়ি ছাড়ের কোনো নির্দেশনা এনবিআর-এর প্রধান কার্যালয় থেকে এখনো তাদের কাছে আসেনি। ট্যাক্স ফাঁকি দিয়ে গাড়ি ছাড়ের কোনো উপায় নেই। নতুন বাজেট অনুযায়ী, এক বছরের কম পুরনো গাড়িতে কোনো অবচয় সুবিধা নেই। এক বছরের বেশি কিন্তু দুই বছরের কম পুরনো গাড়ির অবচয় সুবিধা দেওয়া হবে ৩০ শতাংশ। দুই বছরের বেশি কিন্তু তিন বছরের কম পুরনো গাড়িতে অবচয় সুবিধা ৩৫ শতাংশ।

অন্যদিকে, তিন বছরের বেশি কিন্তু চার বছরের কম পুরনো গাড়িতে অবচয় সুবিধা ৪০ শতাংশ। চার বছরের বেশি কিন্তু পাঁচ বছরের কম গাড়িতে অবচয় সুবিধা ৪৫ শতাংশ। নতুন বছরে গাড়ি আমদানিতে ট্যাক্স কমানোয় অবচয় সুবিধা নিতে বিভিন্ন তৎপরতা চালাচ্ছেন ওই অসৎ গাড়ি ব্যবসায়ীরা। গাড়িগুলো তিন বছর আগে আমদানি করায় আগের অর্থ বছরের নিয়মে ট্যাক্স দিয়ে ছাড় করাতে হবে। কিন্তু ব্যবসায়ীরা চলতি অর্থ বছরে অনুমোদিত ট্যাক্সের আওতায় গাড়ি ছাড় করাতে রাজস্ব বোর্ডে জোর তদবির করছেন।

 


এখানে শেয়ার বোতাম
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  






পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  
All rights reserved © 2021 shirshobindu.com